আজ বৃহস্পতিবার, ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৩০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ক্যাসিনো সম্রাট সেলিমের মনোনয়ন বাতিল

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:
আসন্ন রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আলোচিত অনলাইন ক্যাসিনো সম্রাট ডন সেলিম প্রধানের চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন পত্র বাতিল করেছে নির্বাচন কমিশন। মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) সকাল এগারোটার দিকে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে মনোনয়ন পত্র যাছাই বাছাই শেষে তার মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়।
নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( সার্বিক) ও রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দায়িত্ব প্রাপ্ত রিটার্নিং অফিসার সাকিব আল রাব্বি জানান, সেলিম প্রধানের বিরুদ্ধে দুদকের এক মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে কারাভোগের অভিযোগ করেছে অন্য প্রার্থীরা। এ বিষয়ে তার আইনজীবী সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা দিতে পারেননি। ফলে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় সেলিম প্রধানের মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়েছে।

 

রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী জনাব মোঃ হাবিবুর রহমান এর আইনজীবী ব্যারিস্টার মাহিন এম. রহমান ( এডভোকেট, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট) বলেন “ জনাব সেলিম প্রধান দুর্নীতি দমন আইন ও মানি লণ্ডারিং আইনের আওতায় নৈতিক স্খলন জনিত কারনে ২ বছরের অধিক সাজা প্রাপ্ত একজন আসামী হওয়ায় উপজেলা পরিষদ আইনের ধারা ২(ঘ) অনুযায়ী নির্বাচন করতে অযোগ্য (disqualified)। এ বিষয়টি রিটার্নিং কর্মকর্তার নজরে আনায় তার মনোনয়ন পত্র বাতিল করায় আইনের সঠিক প্রয়োগ হয়েছে বলে আমি মনে করি।”

মহামান্য হাই কোর্ট বিভাগ এর একটি দ্বৈত বেঞ্চ বিগত ২৭/১১/২০১৮ ইং তারিখে  একটি কমন আদেশ প্রদান করেন এবং উক্ত আদেশ হাইকোর্ট বিভাগ বলেছেন যে দুর্নীতির মামলায় দুই বছরের বেশী সাজাপ্রাপ্ত কোনো ব্যক্তির জামিন বা সাজা আপিলে স্থগিত থাকলেও তিনি নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না, যদি না তার সাজা উপযুক্ত আদালত কর্তৃক বাতিল না হয়। আদালত আরও বলেছেন যে আপিল বিচারাধীন থাকা মানে দণ্ডিত ব্যক্তি নির্দোষ নয়। একমাত্র উপযুক্ত আদালত কর্তৃক সাজা বাতিল হলে দণ্ডিত ব্যক্তি নির্দোষ হবেন। দণ্ড বাতিল না হওয়া পর্যন্ত নির্বাচনে অংশগ্রহণের কোনো সুযোগ নেই।

জানা গেছে, ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান চলাকালে ২০১৯ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে থাইল্যান্ডগামী বিমান থেকে নামিয়ে এনে সেলিম প্রধানকে আটক করেছিলো র‌্যাব। এরপর তার বাসা ও অফিসে অভিযান চালিয়ে দেশি-বিদেশি মুদ্রা ও বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদ জব্দ করা হয়। তখন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী বলেছিল, সেলিম প্রধান বাংলাদেশে অনলাইন ক্যাসিনো বা অনলাইন জুয়ার মূল হোতা। তিনি প্রচুর টাকা বিদেশে পাচার করেছেন। সেই সঙ্গে সেলিম প্রধানের বিরুদ্ধে ঢাকার গুলশান থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন ও বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ন্ত্রণ আইনে তিনটি মামলা হয়। এসব মামলা বিচারাধীন রয়েছে। তবে সেলিম প্রধান এখন জামিনে রয়েছেন।

একই সঙ্গে দুদকের এক মামলায় ২০২৩ সালের ৩০ এপ্রিল রায় দিয়েছেন আদালত। তাতে অবৈধভাবে সম্পদ অর্জন ও অর্থ পাচারের দুই ধারায় সেলিম প্রধানকে চার বছর করে কারাদন্ড দেন আদালত।  একই সঙ্গে এ সাজার বিরুদ্ধে তিনি হাইকোর্টে আপিল করেছেন, যা শুনানির অপেক্ষায় রয়েছে।
নির্বাচনের তফসিল অনুযায়ী ২ মে প্রতীক বরাদ্দ ও ২১ মে রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ