আজ শুক্রবার, ১০ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ওপার থেকে গরু না আসলে এপারে কোরবানি হতো না: মন্ত্রী গাজী

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক বলেছেন, একটা সময় গিয়েছে যদি ওপার থেকে গরু না আসত এপারে গরু কোরবানী হতো না। কিছু কিছু সময় হাটে গরু পাওয়া যেতো না। এখন গরুর কোনো অভাব নেই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে প্রাণী সম্পদের বহু উন্নয়ন হয়েছে। আমাদের দেশে গরু চাষ হচ্ছে। খাদ্যের অভাব নেই। মাছ, মাংস,দুধ,ডিমের ঘাটতি নেই।

তিনি বলেন, কোরবানীর সময় গরু ফেরত গেলেও তা বিক্রি হয়ে যায়। গরু চাষ বা উৎপাদন করলে লোকসান হয় না। একটা সময় আসবে গরুর দুধ আমদানি করতে হবে না। আমরা গরুর মাংস, দুধ রপ্তানি করবো।

শনিবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকালে রূপগঞ্জ উপজেলার মুড়াপাড়া সরকারি কলেজ মাঠে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনীর উদ্বোধন ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, আমি মাছ ,মাংস, দুধ উৎপাদন করি। আমি গরু পালন করি। আমার ফ্যাক্টরিতে ৫০ টি গরু আছে। আমার পুকুরে অনেক প্রজাতির মাছ আছে। আমি ধান চাষ করি। সারা বছরের ধান আমাকে কিনতে হয় না। সেই ধান থেকে চাল বানিয়ে আমি খাই। প্রকৃতিকে আমি ভালোবাসি। আমরা সবাই পশু প্রাণীর যত্ন নেবো।

রূপগঞ্জ উপজেলার প্রাণিসম্পদ দপ্তর ও ভেটেরিনারি হাসপাতাল এর আয়োজনে এ বছর প্রদর্শনীতে উপজেলার মোট ৪০ টি এগ্রো ফার্ম অংশ গ্রহণ করে। এর মধ্যে এ বছর প্রদর্শনীতে ষাঁড় ক্যাটাগরীতে সিয়ান এগ্রো ফার্ম প্রথম স্থান অর্জন করেছে এবং গাভী ক্যাটাগরীতে নাবিল এগ্রো ফার্ম প্রথম স্থান অর্জন করেছে।
রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ নুসরাত জাহানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দা ফেরদৌসী আলম নীলা, নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা বাসনা আখতার, রূপগঞ্জ উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা রিগান আহমেদ মোল্লা, মুড়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ আলমাছ, তারাব পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর বিএম আতিকুর রহমান সহ অনেকে। পরে মন্ত্রী পুরস্কার বিতরণ করেন।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ