১২ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৮শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, সকাল ৮:৪৮

আড়াইহাজারে শিশুকে শ্বাসরোধে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

আড়াইহাজারে পাঁচ বছরের শিশু লিজাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে জনতা ৩ জনকে ধরে গণপিটুনী দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার (২৩সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টা হতে দুপুরের মধ্যে উপজেলার সাতগ্রাম ইউনিয়নের পুরিন্দা বড়বাড়ি এলাকায় নান্নু মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া সামাদ এর ঘরে। নিহত শিশু লিজা পুরিন্দা বড় বাড়ি এলাকার রমজান আলীর কন্যা।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে বাড়িতে খেলা করার সময় লিজা নিখোজ হন। লিজাকে না পেয়ে পরিবারের লোকজন খোজাখুজি শুরু করে। দুপুর পোনে ১টার দিকে লিজার পিতা রমজান আলী মেয়েকে খুজতে খুজতে পাশের নান্নু মিয়ার বাড়িতে যান। সেখানে নান্নু মিয়ার ছেলে মোহাইমেন ও অনু মিয়াকে নিয়ে ভাড়াটিয়া সামাদের ঘরে খুজতে থাকে। ঐ সময় তার ঘরের বারান্দার কক্ষে চৌকির মধ্যে ছেড়া কাথা দিয়ে ঢাকা অবস্থায় লিজার দেহ দেখতে পান। নিহত লিজার খোলা শরীর,গলায় গামছা বাঁধা ও পা দুটো বেল্ট দিয়ে বাঁধা এবং —রক্তাক্ত অবস্থায় ছিল। ঐ সময় লিজার বাবা রমজান আলী চিৎকার দিলে আশেপাশের লোকজন এসে আশ্রাব আলীর ছেলে ভাড়াটিয়া সামাদ(৩৫),উপজেলার আসোয়াট এলাকার আনোয়ার হোসেন আনুর ছেলে সোহেল (৩৫) ও নরসিংদীর মাধবদী থানার ভগিরতপুর এলাকার নাসিরউদ্দিনের ছেলে শিমুল (৩২) কে আটক করে গণপিটুনী দিয়ে পুলিশে শোপর্দ করে। বাড়ির মালিকের ছেলে মোহাইমেন জানান,তাদের এ ঘরটিতে সামাদ ও শিমুল ভাড়া নিয়ে থাকত।

লিজার পিতা রমজান আলী এই প্রতিবেদককে জানান, তাকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।

আড়াইহাজার উপপরিদর্শক কাজী সালেহ আহমদ জানান,স্থানীয় উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করতে পুলিশ কাজ করছে।

আড়াইহাজার থানার তদন্ত কর্মকর্তা সংবাদচর্চাকে জানান, শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণ করা হচ্ছে শ^াসরোধে হত্যা। ময়না তদন্ত শেষে মৃত্যুর কারণ বলা যাবে। এ ঘটনায় ৩ জনকে আটক করা হয়েছে। বেশকিছু আলামত জব্দ করা হয়েছে।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ