আজ শনিবার, ১৪ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৮শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

আজাদকে খোঁচা দিলেন আঙ্গুর

সংবাদচর্চা রিপোর্ট:

নেতাদের মধ্যে খেলা শুরু। আড়াইহাজারে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের হাওয়া বইছে। সরকার এবং বিরোধী দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা মাঠ গোছাচ্ছে।
দলীয় মনোনয়ন নিয়ে জরিপ শুরু করে দিয়েছে ক্ষমতাসীন দল । সম্ভব্য প্রার্থীদের নিয়ে আলোচনা, বিশ্লেষণ শুরু হয়েছে। সুত্রের খবর নারায়ণগঞ্জে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে যারা সংসদ নির্বাচন করতে ইচ্ছুক তাদেরকে আন্দোলন-সংগ্রামে মাঠে থাকতে নির্দেশ দিয়েছে বিএনপির হাইকমান্ড। বিএনপির ঘোষিত দলীয় কর্মসূচিতে তারাই নেতৃত্বে থাকছেন । গেল নির্বাচনে আড়াইহাজারে বিএনপির প্রার্থী নজরুল ইসলাম আজাদ পরাজিত হয়। এবার নির্বাচন ঘিরে স্থানীয় বিএনপি ৩ ভাগ। কেউ নিজ বাড়িতে দলীয় কর্মসূচি পালন করছে আবার কেউ মাঠে। গতকাল আড়াইহাজারের বিএনপি নেতাদের সঙ্গে এই প্রতিবেদকের কথা হয়। কিছু নেতা বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদের পক্ষে কথা বলেন। আবার কিছু নেতা বিএনপির সাবেক এমপি আতাউর রহমান আঙ্গুরের পক্ষে কথা বলেন। আজাদ সমর্থকরা জানান, আঙ্গুর সংস্কারপন্থী। তাকে দল নমিনেশন দেবে না। আজাদ জিয়া পরিবারের সৈনিক।

আঙ্গুর সমর্থকরা জানান, আজাদ আড়াইহাজার থানা বিএনপিকে ধ্বংস করার চেষ্টা করছে। অনেক নেতাকে কমিটি থেকে বাদ দিয়েছে। সেই নেতারা এবার তার বিচার করবে।

এসব ব্যাপারে গত ১৭ সেপ্টেম্বর বিএনপির সাবেক এমপি আতাউর রহমান আঙ্গুর সংবাদচর্চাকে বলেন, আড়াইহাজারে এমপি হতে গেলে ভৌগোলিক দিকটা গুরুত্বপূণ। ভৌগোলিক দিক দিয়ে আজাদ সাহেব বেকায়দায়। থানা হতে তার বাড়ি এক কোনায়। আমি মাঝখানে। আমি তিনবার এমপি নির্বাচিত হয়েছি।
তিনি আরও বলেন, জনগণের সাথে তার (আজাদ) সম্পৃক্ততা নেই। জনগণ তাকে চায় না। নির্বাচনের পরিবেশ ভালো হলে,দল নির্বাচনে গেলে আমি দলীয় নমিনেশন চাইবো। আড়াইহাজার বিএনপি এখন তিনভাগ। শেষ পর্যন্ত আমার ভাতিজা আমার পক্ষে থাকবে। আমার কোনো গ্রুপ নাই। সে বাড়িতে সভা করে। আমি বিভিন্ন এলাকা ঘুরে ঘুরে কর্মসূচি পালন করছি। দলীয় নেতাকর্মীদের খোঁজ- খবর রাখছি। দল গেলবার তিনজনকে মনোনয়ন দিয়েছিলো। এবার একজনকে মনোনয়ন দেবে। আমি আশাবাদী।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ