১০ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, সন্ধ্যা ৭:৪১

আইভীর উন্নয়ন, তৈমূরের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক

নারায়ণগঞ্জের উন্নয়ন আইভীর উন্নয়ন, নারায়ণগঞ্জের উন্নয়ন শেখ হাসিনার উন্নয়ন। অনুষ্ঠেয় নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের তৃতীয় দিনে আওয়ামী লীগের মনোনীয়ত মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর গণসংযোগে এমন শ্লোগানে মুখোরিত নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ড। অপর দিকে খালেদা জিয়ার মার্কা হাতি, তারেক জিয়ার মার্কাও হাতি জানিয়ে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারও সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন ওয়ার্ডে জোর প্রচারণা চালাচ্ছেন। আওয়ামী লীগ ও বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত হেভিওয়েট এই দুই মেয়র প্রার্থী আগামী নির্বাচনে জয়ী হতে ভোটারদের কাছে টানতে দিচ্ছেন উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি।

শুক্রবার ৩১ ডিসেম্বর বেলা সাড়ে ১১ টায় নগরীর ১৩ ওয়ার্ডের জামতলা এলাকায় জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দসহ স্থানীয়দের নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা ও গণযোগ করেন সদ্য সাবেক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। এ সময় ভোরদের কাছে ভোট প্রার্থনা করাসহ পুনরায় তাকে নির্বাচিত করা হলে সকল সমস্যার সমাধান করা হবে জানিয়ে এলাকাবাসীকে আশ্বস্ত করেন আইভী। জনগন আমাকে স্বাগত জানাচ্ছে তারা নৌকায় ভোট দিবে। নৌকা মানে আইভী, আইভী মানে নৌকা।

আইভী বলেন, নারায়ণগঞ্জ কোন নির্বাচনে কখনো সহিংসতার পর্যায় যায়নি। আমি আশা করবো এবারের নির্বাচনেও আমরা সহিংসতা পরিহার করে একটি সুন্দর ও উৎসব মুখর পরিবেশে নির্বাচন করতে পারবো। সিটি কর্পোরেশনে যে কাজগুলো চলমান রয়েছে নির্বাচিত হয়ে সে কাগুলো শেষ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেন আইভী। পাশাপাশি পরিবেশের উপর জোড় দিয়ে খাল খনন, পুকুর গুলো সংরক্ষণ করা, খোলার মাঠ করা ও পার্ক করা, এ ধরনের কাজ গুলো বেশি করতে চান বলে জানান তিনি।

আইভী বলেন, ঢাকা ওয়াসার দায়িত্ব এখন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের। এ কারনে আগামীতে সুপিয় পানি যাতে জনগণকে পৌছে দিতে পারি সে ব্যবস্থা করবো। ওয়াসার পাইপ অনেক পুরানো পাইপ, অনেকে আগের পাইক। আমি সব গুলো পাইপ পরিবর্তন করার কাজ চলমান রেখে এসেছি। আগামীতে এ প্রকল্পটি কাজ শেষ করা হবে।

নগরীর যানজট নিরসনের বিষয়ে প্রশ্ন করলে আইভী সাংবাদিকদের বলেন, আপনাদের জানা যানজট নিরসনে স্থানীয় সরকারের কিছুই করার নেই, এটা দেখার জন্য ট্রাফিক বিভাগ আছে। তবে তারা নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের কাছে যে ধরনের সহযোগিতা চায় তারা তা পায়। তাছাড়া নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের একটি মাষ্টার পরিকল্পনা আছে যাজট নিরসনে। কারণ যানজট শুধু এখানে না সারা দেশে আছে।

অপর দিকে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী বিএনপি নেতা তৈমূর আলম খন্দকার সিদ্ধিরগঞ্জের ৬ নং ওয়ার্ডের আদমজী আইলপাড়া এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণা ও গণসংযোগ করেন। গণসংযোগের একপর্যায়ে তিনি সাংবাদিকদের জানান, সরকারি দলের নেতারা আচরণ বিধি লঙ্ঘন করছে।

তৈমূর বলেন, সরকারি দলের নেতারা আচরণ বিধি লঙ্ঘন করছে জানিয়ে অভিযোগ করছি কিন্তু নির্বাচন কমিশন কোন অ্যাকশন নেয় না। সরকারি দলের নেতা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই বলেছেন, তৈমুর আলম খন্দকার কে মাঠে নামতে দেয়া হবে না। তার এ কথা আমি মাইন্ড করি নাই কারন তিনি মেহমান হিসেবে সেখানে গেছেন। আমার পাশে জনগন আছে, কারন গত ৫০ বছরে আমার দ্বারা কোন জনগন প্রতারিত হয় নাই, ক্ষতিগ্রস্থ হয় নাই।

তিনি বলেন, গত তিন বছর ধরে বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ চলছে কিন্তু শেষ হয় না। কোন কাজ স্বয়ংসম্পূর্ণ হয় নাই। স্বাস্থ্য খাত স্বয়ংসম্পূর্ণ হয় না। প্রতিটি এলাকায় মাতৃসদন কেন্দ্র থাকা দরকার, প্রাথমিক চিকিৎসা কেন্দ্র থাকা দরকার, কমিউনিটি সেন্টার থাকা দরকার কিন্তু নাই তবে হইছে আবাসন। আবাসন করার দায়িত্ব সিটি কর্পোরেশনের না। সিটি কর্পোরশেনের দায়িত্ব হলো নাগরিক সুবিধা দেয়া।

নির্বাচিত হতে পারলে নারায়ণগঞ্জের নাগরিক সমস্যার সমাধান দূর করা হবে জানিয়ে তৈমূর আরো বলেন, স্থানীয় লোকজনের চাকুরির ব্যবস্থা হবে, পানিসহ সব ধরনের বাড়ানো ট্যাক্স কমানো হবে। জনগন আমার পাশে আছে তারা আমাকে নির্বাচিত করবে।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ