আজ রবিবার, ৩০শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৪ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

আইভীকে কাফের ফতোয়া –!

নিজস্ব প্রতিবেদক:
নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র ও আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, জীবনের শেষদিন পর্যন্ত আমি জয় বাংলা বলবো। আমার শেষ ঠিকানা যেনো হয় শেখ হাসিনা। বঙ্গবন্ধু হয় যেনো আমার শেষ ঠিকানা। আমার জীবনের শেষ পর্যন্ত আমি আওয়ামীলীগ করবো। আমি এখান থেকে পিছপা হবো না ।

তিনি বলেন, কতিপয় ব্যক্তিরা আমার এই বক্ত্যবকে বিকৃত করে রাজনীতিকে ধর্মের জায়গায় নিয়ে এসেছে। ধর্মের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করা হচ্ছে। আমি যদি লাইলাহা না বলি তাহলে তো আমি মুসলমান না, আমার ঈমানও নাই। নারায়নগঞ্জ সিটি করপোরেশন থেকে আমি ৭টা মসজিদ করেছি। নারায়নগঞ্জেই আমি ৪টা মসজিদ করেছি। আমি আমার বাবার কাছ থেকে যে জায়গা পেয়েছি সেটা আমি মাদ্রাসায় দান করে দিয়েছি। যেখানে আমি ইসলামের খেদমতে এতো কাজ করছি সেখানে আমাকে কাফের ফতোয়া দেয়। বিচার আপনাদের কাছে দিয়ে দিলাম। ভুলত্রুটি মানুষের থাকবে। আমি আপনাদের কারো মেয়ে, কারো বোন ভুল হলে আমাকে বলবেন কিন্তু অপ্রপচারে কান দিবেন না।

শনিবার (২৫ ডিসেম্বর) বিকেলে বন্দরে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা ও সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি।

আইভী বলেন, ইলেকশন আসলেই একটি বিশাল শক্তিধর পক্ষ, যারা রাজনৈতিকভাবে নিজেদের স্বার্থের জন্য কাজ করে তারা আমার পেছনে দাঁড়িয়ে যায়। আজকে যেটা হচ্ছে সেটার পিছনে অনেকের হাত আছে। আমি উন্নয়ন নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। উন্নয়নমূলক কাজ করেছি। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে কাজ করেছি। আজকে যে মাঠে আয়োজন সেটি সিটি করপোরেশনেরই করা। মাঠে কে খেলবে আওয়ামীলীগ নাকি বিএনপি তা দেখিনি। আমি চেষ্টা করেছি কাজ করার জন্য। কাজ করতে দিয়ে আমি কখনো দলমত দেখি নাই। দলমতের উর্ধ্বে উঠে কাজ করেছি। ট্যাক্স যেহেতু আপনারা দেন কখনো চিন্তা করি নাই রাস্তা দিয়ে আওয়ামীলীগ নাকি বিএনপি হাটবে। সকলের জন্য সমানভাবে কাজ করেছি। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন শেষদিন পর্যন্ত এই দলে থেকে আল্লাহর কাজ করতে পারি এবং মানুষের সেবা করতে পারি। মুক্তিযোদ্ধার চেতনাকে ধারনা করে আমি যেনো শেষদিন পর্যন্ত কাজ করতে পারি।

বীর মুক্তিযোদ্ধা ওসমান গনি ভূইয়ার সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন, বন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম.এ.রশিদ, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের জাতীয় কমিটির সদস্য অ্যাড. আনিসুর রহমান দিপু, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলমসহ প্রমুখ।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ