ঘূর্ণিঝড় ইরমা ধেয়ে যাচ্ছে ফ্লোরিডায়

 

 

ঘূর্ণিঝড় ইরমা ধেয়ে যাচ্ছে ফ্লোরিডার দিকে। স্থানীয় সময় গতকাল শনিবার থেকে সেখানে ঝোড়ো বাতাস বইছে ও বৃষ্টি হচ্ছে।

সিএনএনের খবরে জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ১২০ মাইল। জাতীয় ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্র বলছে, কিউবার উত্তর উপকূল থেকে ঘূর্ণিঝড় ফ্লোরিডার দিকে ধেয়ে যাচ্ছে। এটি আরও শক্তিশালী হয়ে আঘাত হানতে পারে। ‘ক্যাটাগরি-ফাইভ’ এই ঘর্ণিঝড় শনিবার ভোরে কিউবার উত্তর উপকূলে আঘাত আনে।

স্থানীয় সময় শনিবার রাতে কিংবা রবিবার ভোরেই ফ্লোরিডায় আঘাত আনবে ইরমা। কিউবার ক্যামাগুয়ে দ্বীপপুঞ্জে ইরমা আছড়ে পড়তেই প্রতি ঘণ্টায় ১৬০ মাইল বেগে বাতাস বইতে শুরু করেছে। সমুদ্র উত্তাল, আকাশ অন্ধকার, নুয়ে পড়া পাম গাছ, ভারী বৃষ্টি, নামছে ধস।

ইতিমধ্যেই পূর্ব ক্যারিবিয়ান তছনছ করেছে ঝড়। সেখানে অন্তত ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আরও বিধ্বংসী ক্ষয়ক্ষতির খবর আসা বাকি বলেই আশঙ্কা।

গত ১০০ বছরে এত ভয়ঙ্কর ঝড় কমই উঠেছে আটলান্টিক মহাসাগরে। ফ্লোরিডা উপকূল ছেড়ে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে ৫৬ লাখ বাসিন্দাকে।

মার্কিন জরুরিকালীন পরিষেবার প্রধান ব্রক লং জানিয়েছেন, অভূতপূর্ব ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখীন হবে উপকূলীয় ফ্লোরিডা সহ গোটা দেশ। আলবামা থেকে নর্থ ক্যারোলাইনা সবাইকেই সতর্ক করা হয়েছে। ভার্জিনিয়া ও আলবামাতেও জরুরি অবস্থা ঘোষিত হয়েছে। ঝড়ের গতিমুখ পশ্চিমে হলেও নর্থ ও সাউথ ক্যারোলাইনার গভর্নর আগামী সপ্তাহে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া ও হড়পা বানের জন্য মানুষকে প্রস্তুত থাকতে বলেছেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ভিডিও-বিবৃতিতে বলেন, ‘ধ্বংসের নতুন ইতিহাস তৈরির ক্ষমতা রাখে ইরমা।’

তিনি সরকার ও প্রশাসনের পরামর্শ মতো চলার জন্য অনুরোধ করেছেন সকলকে। পাম বিচে ট্রাম্পের বিলাসবহুল এস্টেটও খালি করে দেওয়া হয়েছে।

ইরমার দাপটে লণ্ডভণ্ড ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের বারবুডা, সেন্ট মার্টিন এবং ব্রিটিশ ও মার্কিন ভার্জিন দ্বীপগুলি। বাড়ি-হাসপাতাল সবই মাটিতে মিশে গিয়েছে। উপড়ে পড়ে আছে গাছের পর গাছ। এরপরও বিপদ কাটেনি সেখানে। ধেয়ে আসছে ‘ক্যাটেগরি ফোর’ এর আর একটি মহা-শক্তিশালী হারিকেন হোসে।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার অবশ্য জানিয়েছে, কিউবায় বর্ষণের পর সামান্য শক্তিক্ষয় হয়েছে ইরমার। সে এখন ‘ক্যাটেগরি ফোর’ এর ঝড়। কিউবার ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনও বিশদে জানা যায়নি।

 

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *