Home / অন্যরকম খবর / জমে উঠেছে অনলাইন কোরবানির হাট।

জমে উঠেছে অনলাইন কোরবানির হাট।

ইতোমধ্যে জমে উঠেছে অনলাইন কোরবানির হাট। যারা হাটে গিয়ে দরদাম করে কোরবানির পশু কেনার ঝক্কিঝামেলা পোহাতে চান না, তারা অনলাইনে কেনেন। প্রবাসীরা অনলাইনে পশু কিনতে পারছেন বিদেশে বসেই। রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বাইরে থেকেও ক্রেতারা এখন ভিড় করছেন অনলাইন কোরবানির হাটে।  ই-কমার্স সাইটগুলোর পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকেও বিভিন্ন গ্রুপ এবং পেজ খুলে চলছে কোরবানির পশু বিক্রি। এতে এক দিকে হাটের ঝক্কিঝামেলা থেকে ক্রেতারা মুক্ত

থাকছেন, অন্য দিকে গরু-ছাগলের খামারিরাও প্রকৃত মূল্য পাচ্ছেন।

অনলাইনে কোরবানির পশু বিক্রির সাথে জড়িতরা জানিয়েছেন, প্রতি বছরই অনলাইনে কোরবানির পশু বিক্রির সংখ্যা বাড়ছে। গত কয়েক বছরের তুলনায় এবার অনলাইনে কোরবানির পশু কেনার ক্রেতাদের সাড়া বেশি পাওয়া যাচ্ছে। ঈদ যতই এগিয়ে আসবে অনলাইন কোরবানির পশুর হাট ততই জমে উঠছে বলে তারা জানিয়েছেন। কয়েক বছর ধরে অনলাইনে কোরবানির পশু বিক্রি করছে সাদেক এগ্রো, আমারদেশ ই-শপ, বিক্রয় ডটকম, বেঙ্গল মিট, কিকবিডি ডটকম, কেইমু ডটকম, বগডুম ডটকমসহ আরো কয়েকটি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান। এ ছাড়া পেশাদার অনলাইন ই-কমার্স সাইটের পাশাপাশি ঈদকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে গড়ে উঠেছে বেশ কয়েকটি কোরবানির হাট। এসব সাইটে কোরবানির পশুর পাশাপাশি কোরবানি পশু জবাইয়ের বিভিন্ন সরঞ্জামাদিও বিক্রি করা হচ্ছে। এসব সাইট ঘুরে দেখা গেছে, বিভিন্ন জাতের গরু ও ছাগল রয়েছে। তবে দেশী গরুর প্রাধান্যই বেশি। গরুর দাম ৬৫ হাজার থেকে শুরু করে কয়েক লাখ টাকা পর্যন্ত। এ ছাড়া ছাগলের দাম ১৫ হাজার টাকা থেকে শুরু হয়েছে। ঈদের কত দিন আগে বাসায় গরু নিতে চান, তা নির্ধারণ করার সুযোগও আছে। রাজধানী ঢাকার পাশাপাশি সিলেট ও চট্টগ্রামেও পৌঁছে যাচ্ছে পছন্দের গরু-ছাগল।

অনলাইনে পশু ক্রেতা এবং বিক্রেতাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, কিছুটা প্রতারিত হওয়ার আশঙ্কা থাকলেও বিভিন্ন কারণে তারা অনলাইনে পশু কেনার প্রতি ঝুঁকছেন। তবে বিক্রেতারা বলেছেন, ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকলেও ক্রেতাদের সন্তুষ্টিই সবচেয়ে বড় কথা। সে বিষয়টি মাথায় রেখেই তারা আগের চেয়ে অনেক বেশি সতর্ক। এজন্য তারা সাইটে পশুর ছবির পাশাপাশি পুুরো বিবরণ তুলে ধরেন। এতে পশুর জাত, উচ্চতা, ওজন, রঙ, দাম, কোন এলাকা থেকে আনা হয়েছে তা তুলে ধরা হয়। এরপরও গ্রাহকদের আশঙ্কা দূর করতে বিভিন্ন সাইটে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এ ছাড়া কোনো কোনো সাইটে অনলাইনে গরু অর্ডার দেয়ার পর সরাসরি খামারে এসে তা দেখার সুযোগ রয়েছে বলেও জানিয়েছে।

 

 

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *