১৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার, রাত ১২:২৯

২ বছরে ৩৫ রায়, খালাস ৪৩ জন

অ.শুভ:

শহরের জল্লার পাড়ার শিশু আলিফ হত্যা, বন্দরে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন, আড়াই হাজারের আনোয়ার হত্যা, ডাকাতি, অস্ত্রসহ ৩৫ টি চাঞ্চল্যকর মামলার বিচারকার্য শেষ করে রায় দিয়েছেন নারায়নগঞ্জের আদালত। ৫ বছর থেকে যাবজ্জীবন সাজা ও ফাঁসির রায় দিয়েছেন বিজ্ঞ বিচারকরা। অল্প সময়ের মধ্যে চাঞ্চল্যকর মামলাগুলোর বিচারকার্য শেষ হওয়ায় আদালতের প্রতি আরও শ্রদ্ধাশীল হয়ে উঠেছেন নারায়ণগঞ্জের আইনজীবীরা।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮ সালে ১০ টি মামলার রায় হয়েছে। এতে খালাস পেয়েছেন ১৫ জন। ২০১৯ সালে ১২ মামলায় রায় হয়। এর মধ্যে অব্যাহতি পেয়েছেন ১৮ জন। ২০২০ সালের মার্চ পযন্ত ইতিমধ্যে ১৩ টি মামলার রায় হয়েছে। খালাস পেয়েছেন আরও ১০ ব্যক্তি। জেলার চাঞ্চল্যকর এই মামলাগুলোর বিচারকার্য শেষ করেছেন জেলা ও দায়রা জজ আদালত, অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ১ম ও ২ য় আদালতের বিজ্ঞ বিচারকরা।

এ প্রসঙ্গে পাবলিক প্রসিকিউটর (পি পি)ওয়াজেদ আলী খোকন জানান, চাষাঢ়ায় বোমা হামলার মামলা, সাংবাদিক শুভ হত্যা, দেওভোগের শরীফ হত্যাসহ আরও কয়েটি মামলা বিচারকার্য দ্রুত করার চেষ্টা করছি। নারায়ণগঞ্জের বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা আদালত অত্যন্ত বিচক্ষন ভাবে বিচারকার্য করছেন। তিনি ন্যায় বিচারের মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জে দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করেছেন বলে জানান পিপি।

নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট আনিসুর রহমান দিপু জানান, চাঞ্চল্যকর মামলাসহ অন্যান্য মামলার বিচারকার্য দ্রুত শেষ করা হচ্ছে। এতে সাধারণ মানুষ বিচার বিভাগের প্রতি আস্থা আরও বাড়ছে। নারায়ণগঞ্জসহ সারা দেশে আইনের প্রতিষ্ঠা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

গণতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সহ সভাপতি এডভোকেট মাহবুবুর রহমান মাসুম জানান, চাঞ্চল্যকর অনেক মামলার বিচার কার্য শেষ হয়েছে। তবে এখনও মেধাবী শিক্ষার্থী ত্বকী হত্যা, আশিক হত্যা, বুলু হত্যাসহ আরও অনেক মামলার বিচার শেষ হয়নি। নারায়ণগঞ্জের মানুষ আদালতের কাছে প্রত্যাশা করে দ্রত সময়ের মধ্যে এসব মামলার বিচার কার্য শেষ করার জন্য।

নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির সভাপতি এ বি সিদ্দিক জানান, অল্প সময়ের মধ্যে চাঞ্চল্যকর মামলাগুলোর বিচারকার্য করায় আদালতের প্রতি শ্রদ্ধা আরও বেড়েছে। তবে আদালত চাইলে দ্রুত সময়রে মধ্যে আরও অনেক মামলার বিচারকার্য শেষ করতে পারেন বলে জানান তিনি।

সূত্রে জানা গেছে, শহরের জল্লারপাড় এলাকার চার বছরের শিশু শিহাবউদ্দিন আলিফ হত্যা মামলায় একমাত্র আসামি অহিদুল ইসলাম অহিদুল্লাহর (২১) মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আনিসুর রহমান আসামির উপস্থিতিতে এ রায় দিয়েছিলেন। ২০১৮ সালের ১৭ আগস্ট নারায়ণগঞ্জে শিশু আলিফকে হত্যার ঘটনায় মামলা করেন নিহত শিশুটির পিতা।

২৪ জানুয়ারি বন্দর উপজেলায় স্ত্রী হত্যার দায়ে সোলেমান নামে এক ব্যক্তিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ রাশিদা সুলতানা এ আদেশ দেন। এ সময় মামলার একমাত্র আসামি স্বামী সোলেমান পলাতক ছিলেন। গলাটিপে খালেদাকে হত্যা করেন।

আড়াইহাজারের আনোয়ার হোসেন হত্যা মামলার একমাত্র আসামি শ্যামল মোল্লাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাকে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড, আনাদায়ে আরও ৬ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

১৯ জুন নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের বিচারক শাহ মোহাম্মদ জাকির হাসান এই রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় আসামি শ্যামল মোল্লা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

৫ আগস্ট নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় অস্ত্র মামলায় আলোচিত যুবলীগ নেতা রিপন খাঁন ওরফে চশমা রিপনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।
২৯ অক্টোবর রূপগঞ্জ থানায় দায়ের করা একটি মাদক মামলায় জাহাঙ্গীর (৩০) নামে এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

১২ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত দায়রা জজ শেখ রাজিয়া সুলতানার আদালত পৃথক তিন মামলায় ১০জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন। ডাকাতির আটজন ডাকাতকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড। এছাড়া ও এমএসের চাল চুরির অপরাধে ট্রাক ড্রাইভারকে সাত বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও মাদক মামলায় অপর একজনকে তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন আদালত।

১৮ নভেম্বর ডাকাতি মামলায় তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি পাঁচ হাজার টাকা করে প্রত্যেককে জরিমানা করা হয়। অনাদায়ে আরও ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছিলেন আদালত।

স্পন্সরেড আর্টিকেলঃ