ছাত্রলীগের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা,আসছে নতুন মুখ

নতুন মুখটি.আই.আরিফ:

বাংলাদেশ  ছাত্রলীগের ২৯ তম সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে।এবারের সম্মেলনে নতুন মুখ আসছে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদ সহ একাধিক পদে নতুন মুখ আসছে।

শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় কমিটির জরুরি বর্ধিত সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সম্মতি সাপেক্ষে আগামী ৩১ মার্চ ও ১ এপ্রিল সম্মেলন আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভা শেষে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন সম্মেলনের সম্ভাব্য এই তারিখ ঘোষণা করেন।

নতুন মুখের মধ্যে যারা এগিয়ে রয়েছে তাদের মধ্যে বর্তমান কমিটির সহসভাপতি মেহেদি হাসান রনি, রুহুল আমিন ও জাহাঙ্গীর আলম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দিদার মোহাম্মদ নিজামুল ইসলাম ও সায়েম খান, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম এহতেশাম, আশিকুল পাঠান সেতু, দারুস সালাম শাকিল, সৈকতুজ্জামান সৈকত ও শেখ জসিম উদ্দিন। এ ছাড়াও আলোচনায় রয়েছেন বর্তমান কমিটির শিক্ষা ও পাঠচক্র সম্পাদক গোলাম রাব্বানী, আইন সম্পাদক আল নাহিয়ান খান জয়, প্রচার সম্পাদক সাইফ বাবু, দপ্তর সম্পাদক দেলোয়ার শাহজাদা, সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক রানা হামিদ, কর্মসূচি ও পরিকল্পনাবিষয়ক সম্পাদক রাকিব হোসেন, পরিবেশ সম্পাদক এবিএম হাবিবুল্ল্লাহ বিপ্লব, ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ইয়াজ আল রিয়াজ প্রমুখ।

কেন্দ্রীয় কমিটির শীর্ষ দুই পদে আসার লক্ষ্যে তৎপরতা চালাচ্ছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি বায়জিদ আহমেদ খান, ঢাকা উত্তর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন আহমদ, ঢাবির স্যার এএফ রহমান হলের সভাপতি হাফিজুর রহমান প্রমুখ

২০১৫ সালের ২৬ জুলাই সর্বশেষ সম্মেলনে ছাত্রলীগের নেতৃত্বে আসেন সাইফুর রহমান সোহাগ ও এসএম জাকির হোসাইন। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দুই বছর মেয়াদি কমিটির মেয়াদ গত বছরের ২৬ জুলাই শেষ হলেও সম্মেলন কিংবা কাউন্সিলের আয়োজন এতদিন হয়নি।

এতে নতুন কমিটিতে গুরুত্বপূর্ণ পদপ্রত্যাশীরা ক্ষুব্ধ হন। তারা সম্মেলন আয়োজনের জন্য চাপ দিতে থাকেন। এর জের ধরে গত শনিবার ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শোভাযাত্রা উদ্বোধনের সময় সংগঠনটির সাবেক সভাপতি এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের অবিলম্বে ছাত্রলীগের নির্বাহী কমিটির সভা ডেকে সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করার আহ্বান জানান। একই সঙ্গে তিনি জানান, আগামী মার্চ মাসে, স্বাধীনতার মাসে সম্মেলন হোক— এটা নেত্রীর ইচ্ছা।

এ সময় জাকির হোসাইন বলেন, ‘যেহেতু প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাদের সম্মেলনে প্রধান অতিথি থাকেন, সেহেতু তার সম্মতির ওপর বিষয়টি নির্ভর করবে। আমরা নেত্রীকে জানাব এই দুই দিনের কথা। তিনি সম্মতি দিলে ৩১ মার্চ ও ১ এপ্রিল সম্মেলন হবে।’

তিনি বলেন, দেশভাগের পর ১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজলুল হক মুসলিম হলে যাত্রা শুরু করে ছাত্রলীগ। ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন, ১৯৬৬ সালের ছয় দফা, ১৯৬৯-এর গণঅভ্যুত্থান, ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ আর নব্বইয়ের দশকে স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে ছাত্রলীগ ছিল নেতৃত্বের ভূমিক

 

 

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *