আড়াইহাজারে ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষকের পিতাকে গ্রেফতার

10

আড়াইহাজারে ধর্ষণের ঘটনায়আড়াইহাজার প্রতিনিধি:
নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ১৫ বছর বয়সী এক কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণের ঘটনায় আসামী গ্রেফতারে তৎপরতা খুবই সামান্য। মঙ্গলবার সকালে ধর্ষিতার মা রিনা বেগম বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

মামলায় তিনজনের নাম উল্লেখ করাসহ অজ্ঞাত আরও একজনকে আসামি করা হয়েছে। তারা হলেন, ছোট মোল্লারচর আব্বাস আলীর ছেলে শেখ ফরিদ (২২), নাজিম উদ্দিনের ছেলে সাইফুল (২০), ইব্রাহিমের ছেলে সফিকুল ইসলাম (২২)। তবে ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগে পুলিশ ওই এলাকার মৃত রজব আলীর ছেলে আব্বাস আলী গ্রেফতার করে আদালতে পাঠিয়েছে। সে এজাহার নামীয় আসামি শেখ ফরিদের বাবা। এদিকে মামলা তুলে নিতে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল বাদীকে বিভিন্নভাবে হুমকী ধামকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

প্রসঙ্গত, সোমবার রাতে ওই কিশোরীকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে চার বখাটে পালাক্রমে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়।
ধর্ষিতা নরসিংদীর মাধবদী এলাকায় জজ ভূঁইয়া গ্রুপের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান জজ ভূঁইয়া ম্পিনিং মিলে শ্রমিকের কাজ করে। গোপালদী পৌরসভার স্থানীয় ছোট মোল্লার চর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

মামলায় উল্লেখ্য করা হয়, সোমবার রাতে চারজন ধর্ষিতাকে তাদের বাড়ির রান্না ঘর থেকে মুখে কাপড় দিয়ে চেপে ধরে তুলে নিয়ে যায়। পরে স্থানীয় প্রয়াত আজিজ মাস্টারের বাড়ির পুকুরপাড়ে একটি পতিত বাগানে পালাক্রমে ধর্ষণ করে তারা পালিয়ে যায়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল হক বলেন, এ ঘটনায় ধর্ষিতার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। আদালতে সে ২২ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। এ মামলার ধর্ষনকারীর পিতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারে তৎপরতা চলছে।

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here